মিলার জমকালো প্রত্যাবর্তন!

শোবিজ ডেস্ক: টানা ২ বছর পর অভিমান ভাঙলো দেশের অন্যতম জনপ্রিয় পপ গায়িকা মিলার। গত ৪ মার্চ থেকে তিনি ফিরেছেন মঞ্চে, জমকালো আবহে। গান নিয়ে তিনি এখন ঘুরছেন সমগ্র বাংলাদেশ!

তার প্রত্যাবর্তন হয় ৪ মার্চ গাজীপুর জেলা স্টেডিয়াম মঞ্চ থেকে। এদিন মাতিয়ে দেন উপস্থিত দর্শকদের। বুঝিয়ে দেন, পপ গানের রূপবান এখনও আছেন সমান ছন্দে, নাচে আর গানে। শুধু তা-ই নয়, ১১ মার্চ বরিশালের বেলস পার্কে এক কনসার্টে তিনি গানের পাশাপাশি চমকে দেন ড্রামস বাজিয়ে!

জানা গেছে, মাঝের দুই বছর ব্যক্তিগত জীবনের কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার রেশ ধরে গান ও মিডিয়া থেকে একেবারেই নিজেকে আড়ালে রেখেছেন মিলা। এরমধ্যে তিনি স্টেজ শো তো দূরের কথা, কোনও অডিও কিংবা সিনেমার গানেও কণ্ঠ দেননি। পাওয়া যায়নি কোনও টিভি শো কিংবা মিডিয়ার অনুষ্ঠানে।

তবে ব্যক্তিজীবনের সব ঝামেলা পাশ কাটিয়ে আবারও মিলা নিজেকে প্রস্তুত করেছেন গানের জন্য। তারই সূত্রপাত হয় ৪ মার্চ গাজীপুর জেলা স্টেডিয়াম মাঠে ‘হিরো স্বাধীন বাংলা’ কনসার্টের মাধ্যমে। এরপর ৮ মার্চ খুলনা, ১১ মার্চ বরিশালে শো করেন।

মিলা জানান, মার্চ ও এপ্রিলের প্রায় পুরোটা জুড়েই তার শো চূড়ান্ত হয়ে আছে। এরমধ্যে (১৫ মার্চ) অংশ নেবেন চট্টগ্রাম আউটার স্টেডিয়ামে, ১৯ মার্চ কুমিল্লা টাউন হল মাঠে, ২৩ মার্চ ময়মনসিংহের জয়নুল আবেদীন পার্কে, ২৯ মার্চ রাজশাহী জেলা স্টেডিয়াম মাঠে, ২ এপ্রিল রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে।

এই ফিরে আসা প্রসঙ্গে মিলা বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, খুব ভালো আছি। গানে ফিরে মনে হচ্ছে প্রাণটা ফিরে পেয়েছি। যদিও অভিমান করেই এতদিন সব অফার ফিরিয়েছি। তবে পরে বুঝেছি, ভালোবাসার গানের সঙ্গে অভিমান করার মানে হয় না। গানকে অবহেলা করা মানে নিজেকে অস্বীকার করা। সেই ভাবনা থেকে গেল ছয় মাস নিজেকে আবার গড়েছি গানের জন্য। অবশেষে টানা শো করছি। খুব এনজয় করছি। সবচেয়ে ভালো লাগছে, শ্রোতারা আমাকে দারুণভাবে গ্রহণ করেছেন। আমি এখন থেকে সব ভুলে নিয়মিত গাইতে চাই। সবার ভালোবাসা চাই। পেছনের অন্ধকারে আমি আর নিজেকে লুকাতে চাই না।’

২০১৭ সালের ১২ মে হঠাৎ করেই পারিবারিকভাবে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন মিলা ইসলাম ও বৈমানিক পারভেজ সানজারি। বিয়ের প্রায় ১০ বছর আগে থেকেই তাদের পরিচয় ও প্রেম ছিল। বিয়ের পাঁচ মাসের মাথায় মারধর ও যৌতুকের অভিযোগে মিলা মামলা করেন স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে।

কারণ হিসেবে তিনি তখন বলেছিলেন এভাবে, ‘১০ বছর সম্পর্কের পর আমরা বিয়ে করেছিলাম। কিন্তু বিয়ের মাত্র ১৩ দিন পর জানতে পারি একাধিক নারীর সঙ্গে তার (পারভেজ সানজারি) সম্পর্ক আছে। প্রেমের সময় থেকেই সে আমার সঙ্গে প্রতারণা করে এসেছে। বিয়ের পরও একাধিক নারীর সঙ্গে সম্পর্ক রেখে আমাকে প্রতারিত করেছে। এত বছরের সম্পর্কের পরও যে মানুষ এমন করতে পারে তার সঙ্গে এক ছাদের নিচে থাকা যায় না।

কোনও নববধূই এমন বর প্রত্যাশা করে না। মানুষ হিসেবে শুধু আমি নই, এটা কেউই মেনে নিতে পারবে না। কোনও স্বামীই তার স্ত্রীর অন্যের সঙ্গে সম্পর্ক কিংবা কোনও স্ত্রী অন্য নারীর সঙ্গে তার স্বামীর সম্পর্ক সহ্য করতে পারে না।’ মূলত হঠাৎ বিয়ে, দ্রুত সময়ে বিচ্ছেদ ও মামলাকে কেন্দ্র করে মিলা ক্রমশ নিজেকে গুটিয়ে নেন মিডিয়া ও গান থেকে।

মঞ্চে ফেরার পর মিলা বাজালেন ড্রামস-ও!:

আপনার মন্তব্য দিন